Saturday, August 1
Shadow

Tag: ইসলাম

এপ্রিল ফুলের ইতিহাস ও কেন উদযাপন করবেন না।

এপ্রিল ফুলের ইতিহাস ও কেন উদযাপন করবেন না।

জীবন বিধান
মূল: শাইখুল ইসলাম মুফতি তাকী উসমানী অনুবাদ: মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী  এপ্রিল ফুল উদযাপন পশ্চিমাদের অন্ধ অয়ানুগত্যের প্রবণতা আমাদের সমাজে যেসব প্রথার প্রচলন ঘটিয়েছে তার অন্যতম হল, এপ্রিল ফুল উদযাপন। এই প্রথার অধীনে এপ্রিলের প্রথম তারিখে মিথ্যা বলে কাউকে ধোঁকা দিয়ে বোকা বানানোকে শুধু বৈধ মনে করা হয় না; বরং একে রীতিমত একটি কৃতিত্ব মনে করা হয়। যে যত বেশি নিপুণ এবং চতুরতাপূর্ণভাবে অন্যজনকে বড় ধোঁকা দিতে পারে তাকে তত অধিক প্রশংসার যোগ্য এবং পহেলা এপ্রিল পালনে, এর আনন্দ উদযাপনে যথাযোগ্য সফল বলে মনে করা হয়! মানুষকে ধোঁকা দেয়ার এই রুচি–যাকে সত্যিকার অর্থে অপরাধ ও কুরুচিপূর্ণ কর্মই বলা উচিত–জানা নেই, এতে কত মানুষের জান-মালে অনর্থক ক্ষতি সাধন হয়। এমনকি এর পরিণামে মৃত্যু পর্যন্ত ডেকে আনতে পারে! ধোঁকা দিয়ে বোকা বানাতে গিয়ে তাকে এমন মর্মবেদনা ও পীড়াদায়ক মিথ্যা দুঃসংবাদ শুনিয়ে দেয়া হয়, য...
আপনার কাছে কিছু প্রশ্ন? উত্তর আছে আপনার কাছে? এড়িয়ে যাবেন না।

আপনার কাছে কিছু প্রশ্ন? উত্তর আছে আপনার কাছে? এড়িয়ে যাবেন না।

তাওবা
প্রবন্ধটি পড়া হলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না রহমান রহীম আল্লাহ্‌ তায়ালার নামে- লিখেছেনঃ সাইফ নিজেকে করার মত কিছু প্রশ্ন , যদি পারেন তো জবাব দিন , না পারলে আল্লাহর দিকে ফিরে আসুনঃ ১/ আপনি শুধু জুমআ’র নামাজই পড়েন কেন? আপনাকে কি আল্লাহ্‌ শুধু জুমার দিনেই আলো, বাতাস, পানি খাবার দিয়ে থাকেন? শনিবার (more…)
আমি তাওবা করতে চাই। কিন্তু! শেষ পর্ব :::পাপ করে ফেললে কি করবো?

আমি তাওবা করতে চাই। কিন্তু! শেষ পর্ব :::পাপ করে ফেললে কি করবো?

তাওবা
প্রবন্ধটি পড়া হলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না রহমান রহীম আল্লাহ্‌ তায়ালার নামে-  আপনি হয়তো বলতে পারেন, যখন আমার দ্বারা পাপ হয়ে যাবে তখন কিভাবে দ্রুত তাওবা করতে পারি? এমন কোন কাজ রয়েছে কি যা পাপ করার সাথে সাথেই করতে পারি? উত্তর: পাপ থেকে বিরত হয়েই দুটি কাজ করতে হবে: এক: (more…)
আমি তাওবা করতে চাই। কিন্তু! পর্ব-৩ – তাওবার শর্ত ও এর পরিপূরক বিষয়

আমি তাওবা করতে চাই। কিন্তু! পর্ব-৩ – তাওবার শর্ত ও এর পরিপূরক বিষয়

তাওবা
প্রবন্ধটি পড়া হলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না রহমান রহীম আল্লাহ্‌ তায়ালার নামে-  তাওবা শব্দটি এক মহান শব্দ। এর অর্থ খুবই গভীর। এমন নয় যা অনেকেই মনে করে থাকেন, মুখে শব্দটি বললাম অতঃপর গুনাহে লিপ্ত থাকলাম। আপনি আল্লাহর নিম্নোক্ত বাণী অনুধাবন করে দেখুন। আল্লাহ্ কি বলছেন: “তোমরা তোমাদের প্রভূর নিকট (more…)...
আমি তাওবা করতে চাই। কিন্তু! পর্ব-২: পাপকে তুচ্ছজ্ঞান করার ভয়াবহতা

আমি তাওবা করতে চাই। কিন্তু! পর্ব-২: পাপকে তুচ্ছজ্ঞান করার ভয়াবহতা

তাওবা
প্রবন্ধটি পড়া হলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না রহমান রহীম আল্লাহ্‌ তায়ালার নামে-  পরাক্রমশালী আল্লাহ তার বান্দাদের নির্দেশ দিয়েছেন নিষ্ঠার সাথে তাওবা করার জন্য। তিনি বলেন:   “হে ঈমানদারগণ! তোমরা আল্লাহর নিকট নিষ্ঠার সাথে তাওবা কর (প্রত্যাবর্তন কর)।’’ (আত তাহরীম: ৮) কেরামান কাতেবীন (ফেরেশতা) আমাদের কারো গুনাহ্ লিখার পূর্বে আল্লাহ আমাদেরকে তাওবার ব্যাপারে অনেক ঢিল দিয়েছেন। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন: নিশ্চয় বামপাশের ফেরেশতা কলম উঠিয়ে রাখে ছয় ঘন্টা পর্যন্ত ভূলকারী মুসলিম বান্দা থেকে। বান্দা যদি অনুতপ্ত হয় এবং আল্লাহর নিকট ক্ষমা চায় তাহলে তা মাফ করে দেয়া হয়, নতুবা একটি গুনাহ লিখা হয়। (তাবারানী, বায়হাকী, ইমাম আলবানী হাদীসটিকে হাসান বলে অভিহিত করেছেন) আরেকটি ফুরসত হলো লিখার পরে এবং মৃত্যু উপস্থিত হওয়ার পূর্বে। বর্তমান যুগের সমস্যা হলো ...
আমি তাওবা করতে চাই। কিন্তু!! পর্ব-১

আমি তাওবা করতে চাই। কিন্তু!! পর্ব-১

তাওবা
প্রবন্ধটি পড়া হলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না রহমান রহীম আল্লাহ্‌ তায়ালার নামে-  সমস্ত প্রশংসা একমাত্র আল্লাহর জন্য। আমরা তাঁর প্রশংসা করছি এবং তাঁরই কাছে সাহায্য চাচ্ছি। আল্লাহ তা’আলা যাকে হেদায়াত দান করেন তাকে কেউ পথভ্রষ্ট করতে পারেনা। আর তিনি যাকে পথভ্রষ্ট করেন তাকে কেউ পথ দেখাতে পারে না। (more…)
একশটি কবীরা গুনাহ

একশটি কবীরা গুনাহ

জীবন বিধান
কবীরা গুনাহ কাকে বলে? কবীরা গুনাহ বলা হয় ঐ সকল বড় বড় পাপকর্ম সমূহকে যেগুলোতে নিন্মোক্ত কোন একটি বিষয় পাওয়া যাবে: যে সকল গুনাহের ব্যাপারে ইসলামে শরীয়তে জাহান্নামের শাস্তির কথা বলা হয়েছে। যে সকল গুনাহের ব্যাপারে দুনিয়াতে নির্ধারিত দণ্ড প্রয়োগের কথা রয়েছে। যে সকল কাজে আল্লাহ তায়ালা রাগ করেন। যে সকল (more…)...
মুহররম ও আশুরার ফজিলত (পবিত্র কুরআন ও হাদিসের আলোকে)।

মুহররম ও আশুরার ফজিলত (পবিত্র কুরআন ও হাদিসের আলোকে)।

হাদিস
প্রবন্ধটি পড়া হলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না রহমান রহীম আল্লাহ্‌ তায়ালার নামে- লেখক : মুহাম্মাদ সালেহ আল মুনাজ্জিদ |  অনুবাদক : ইকবাল হোছাইন মাছুম।   الحمد لله رب العالمين، والصلاة والسلام على نبينا محمد خاتم الأنبياء وسيد المرسلين وعلى آله وصحبه أجمعين وبعد মুহররম, একটি মহান বরকতময় মাস। হিজরি সনের (more…)
রোজার নিয়ত ও রোজা ভঙ্গের কারণ সমুহঃ

রোজার নিয়ত ও রোজা ভঙ্গের কারণ সমুহঃ

রমজান
রোজা ভঙ্গের কারণ সমুহঃ ১. ইচ্ছাকৃত পানাহার করলে। ২. স্ত্রী সহবাস করলে । ৩. কুলি করার সময় হলকের নিচে পানি চলে গেলে (অবশ্য রোজার কথা স্মরণ না থাকলে রোজা ভাঙ্গবে না)। ৪. ইচ্ছকৃত মুখভরে বমি করলে। ৫. নস্য গ্রহণ করা, নাকে বা কানে ওষধ বা তৈল প্রবেশ করালে। ৬. জবরদস্তি করে কেহ রোজা (more…)
রমজানে সাহরির ফজিলত ও গুরুত্বঃ

রমজানে সাহরির ফজিলত ও গুরুত্বঃ

রমজান
রাসুল (সা.) সাহরি বা সেহেরি খেতে আদেশ করেছেন। বুখারী ও মুসলিম শরীফে হযরত আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত হাদীসে এসেছে, রাসুল (সা.) বলেছেন, তোমরা সাহরি খাও, কারণ সাহরিতে বরকত রয়েছে। সাহরিতে বরকত এবং ফজিলত রয়েছে। আর তাই রাসুল (সা.) কখনো সাহরি থেকে বিরত থাকতেন না। সাহাবায়ে কেরামকেও সাহরির (more…)